বাচ্চাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা (ইউমিনিটি) বৃদ্ধির টিপসঃ

বাচ্চাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা (ইউমিনিটি) বৃদ্ধির টিপসঃ

(আনুমানিক পড়ার সময় ১ মিনিট ১৫ সেকেন্ড)

আমরা প্রায়শই আশঙ্কা করি যে আমাদের শিশু কাশি বা সর্দি বা অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হবে। তবে শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যদি শক্তিশালী থাকে তবে মা-বাবা নিশ্চিন্তে থাকতে পারে। নীচের এই কয়েকটি টিপস অনুসরণ করে খুব সহজেই প্রাকৃতিক ভাবে শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা সম্ভবঃ

১. অল্প বয়স্ক শিশুর জন্য বুকের দুধ খাওয়ানোই সর্বোত্তম প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির উপায়। সুতরাং বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়ানোর বিষয়টি নিশ্চিত করুন।

২. নিয়মিত বাচ্চাকে সঠিক তেল দিয়ে মাসাজ করুন। এজন্য অলিভ বা অ্যালমণ্ড (বাদাম) তেল ব্যাবহার করতে পারেন। তবে মনে রাখবেন সকল শিশুর ত্বকের চাহিদা এক নয়।

৩. বাচ্চাকে নিয়মিত স্নান করালে তারা সতেজ বোধ করে এবং এতে শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়।

৪. যদি শিশু এক বছর বা তার বেশি বয়সী হয় তবে নিয়মিত কমলার রস বা লেবুর রস করে ভিটামিন সি পরিপূরক দিন। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে এটি দারুন কাজ করে।

৫. উপযুক্ত পুষ্টি আপনার শিশুর স্বাস্থ্যের মূল চাবিকাঠি। তাদের খাবারে (ডায়েটে) কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, ফ্যাট, খনিজ ইত্যাদির মতো পুষ্টি সরবরাহের বিষয়টি নিশ্চিত করুন। তাদের খাবারে ভিন্নতা আনুন যাতে তারা প্রতিদিন তাদের খাবার উপভোগ করতে পারে।  

৬. শিশুকে সময়মতো প্রয়োজনীয় টিকা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করুন।

৭. সবুজ শাকযুক্ত (যেমনঃ পালং শাক) খাবার (যেমনঃ সবজি, খিচুড়ি) আপনার শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে আশ্চর্যজনক কাজ করবে।

৮. শারীরিক কার্যকলাপ বৃদ্ধি শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য খুব জরুরী।

৯. শিশুকে ঘরে রান্না করা খাবার বা অর্গানিক খাবার খাওয়ানোর চেষ্টা করুন।

আমাদের সন্তানরা, আমাদের আনন্দের উৎস। তারা যদি সুস্থ থাকে তবে পুরো পরিবার সুখি হবে। সুতরাং এই টিপসগুলি অনুসরণ করে দেখতে পারেন। প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

ধন্যবাদ।

Leave a Reply

×

Cart