নবজাতকের পোশাক পরিচ্ছদ নিয়ে কিছু কথাঃ

নবজাতকের পোশাক পরিচ্ছদ নিয়ে কিছু কথাঃ

নবজাতক শিশুর পোশাক পরিচ্ছদের বিষয়ে অনেকেরই সঠিক ধারণা নেই। এর কারণে শিশুর অনেক ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। তাই এই ব্যাপারগুলো সবার জানা দরকার-

  • নবজাতক শিশুকে নরম, ঢিলেঢালা ও আরামদায়ক কাপড় পরাতে হবে। তা যেন সহজে পরানো ও খোলা যায়।
  • সুতি কাপড় শিশুর জন্য ভাল। কারণ সিনথেটিক কাপড় থেকে শিশুর এলার্জি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • আজকাল অনেকে ডিসপোজেবল ডায়াপার শিশুকে পরিয়ে থাকেন। এগুলো তুলা, টিসু, কাগজ ও পাতলা প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি। তাই এধরনের ডায়াপার সর্বক্ষণ শিশুকে পরিয়ে রাখা উচিত নয়। এতে শিশুর ন্যাপি র‍্যাশ সহ নানা প্রকার চর্মরোগ হতে পারে।
  • নবজাতকের জন্য সবচেয়ে স্বাস্থ্য সম্মত হচ্ছে সুতি কাপড়ের তৈরি ন্যাপি ব্যবহার করা। প্রতিবার প্রস্রাব পায়খানা করে ভিজিয়ে ফেলার সাথে সাথে ন্যাপি বদলে দিতে হবে। তাই সবসময় পরিষ্কার ও শুকনো ২০-২৫ টি কাপড়ের ন্যাপির যোগাড় রাখা ভালো।
  • শিশুর ন্যাপি বা কাঁথা ও পরিধেয় কাপড় একটি ঢাকনা দেয়া বালতি বা ঝুড়িতে জমা করতে হবে।
  •  এরপর পরিধেয় কাপড় ও ন্যাপি/ কাঁথা আলাদাভাবে গরম পানি ও সাবান দিয়ে ধুতে হবে ।
  •  এইসব কাপড় প্রথমে ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে তারপর কম ক্ষারযুক্ত সাবান ও গরম পানি দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করে ধুয়ে, রোদে শুকিয়ে পুনরায় ব্যবহারের উপযোগী করতে হবে।
  • খেয়াল রাখতে হবে যেন নোংরা বা ধূলাযুক্ত স্থানে কাপড় শুকাতে দেয়া না হয়।
  • নবজাতকের কাপড় ধোয়ার পর ইস্ত্রি করে নেওয়া স্বাস্থ্যসম্মত।
  • নবজাতকের কাপড়, ন্যাপি, কাঁথা বা অন্যান্য ব্যবহারের কাপড় ধোয়ার জন্য পানিতে ডেটল, সেভলন বা জীবাণুনাশক দ্রব্য ব্যবহার করা উচিত নয়। এতে শিশুর শরীরে এলার্জি হতে পারে।

Leave a Reply

×

Cart